Fri, February 3, 2023
রেজি নং- আবেদিত

প্রয়োজনীয় টুকিটাকি

গুগল ক্রোমে অন্য সার্চ ইঞ্জিন

গুগল ক্রোমের অ্যাড্রেস বারে কোন কিওয়ার্ড লিখে এন্টার করলে ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিনে সার্চের ফলাফল দেখা যায়। সাধারণত গুগল সার্চ ইঞ্জিনই ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিন হিসাবে থাকে। গুগল ক্রোমে আরো যুক্ত বিং এবং ইয়াহু সার্চ ইঞ্জিন যা ইচ্ছা করলে ডিফল্ট হিসাবে ব্যবহার করা যায় এছাড়াও নির্দিষ্ট ওয়েব সাইটের সার্চ ইঞ্জিনকেও যুক্ত করে ডিফল্ট করা যায়। এজন্য Tools মেন্যু Options এ ক্লিক করুন এবং Basic ট্যাবের Default Search এর ড্রপ ডাউন থেকে ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিন নির্বাচন করলেই হবে। নতুন সার্চ ইঞ্জিন যোগ বা বাদ দিতে চাইলে Manage বাটনে ক্লিক করে উইন্ডো থেকে সার্চ ইঞ্জিন ইচ্ছামত ডিফল্ট করা বা নতুন ইঞ্জিন যোগ করা অথবা মুছে দিতে পারবেন। কোন সাইটে যদি কাস্টমাইজ সার্চ ইঞ্জিন যুক্ত থাকে যা ফায়ারফক্স এবং ইন্টারনেট এক্সপোরার ৭+ এর উপযোগী করে তৈরি করা সেই সার্চ ইঞ্জিনও এখানে যুক্ত করা যাবে। সেজন্য ব্রাউজারে আগে উক্ত সাইটে প্রবেশ করে তার পরে সার্চ ইঞ্জিন Manage এ আসুন। তাহলে নিচে উক্ত সার্চ ইঞ্জিন দেখাবে। এবার উক্ত সার্চ ইঞ্জিন নির্বাচন করে Make Default বাটনে ক্লিক করলে সার্চ ইঞ্জিনটি যুক্ত হবে এবং ডিফল্ট হবে।

ওয়েব ব্রাউজারেই পড়া যাবে অনলাইনের PDF ফাইল

সাধারণত কোন পিডিএফ রিডার সফটঅয়্যারইনস্টল দেয়া না থাকলে পিডিএফ ফাইল পড়াযায় না। অনলাইনের কোন পিডিএফ ফাইলপড়তে হলে তাই বেশ ঝামেলাই পড়তে হয়।যদিও অনলাইনেই কিছু কিছু সাইটে পিডিএফফাইল পড়া যায়। তবে গুগল ক্রোম বা ফায়ারফক্সব্যবহারকারীরা চাইলে gPDF নামের একটি প্লাগিন ইনস্টল করেই গুগল ডক্স ভিউয়ারের সাহায্যে পিডিএফ ফাইল পড়তে পারেন। ফায়ারফক্সের জন্য এ্যাড-অন্সটিhttps://addons.mozilla.org/en-US/firefox/addon/14814/ থেকে এবং গুগল ক্রোমের জন্য এক্সটেনশনটি https://chrome.google.com/extensions/detail/egljjohbmnnpicoiddaapkpejfpnmmpe থেকে ইনস্টল করে নিন। এরপরে থেকে কোন ওয়েবসাইটের পিডিএফ লিংকে ক্লিক করলে তা সয়ংক্রিয়ভাবে গুগল ডক্স ভিউয়ারে লোড হবে এবং দেখা যাবে।

গুগল অভিধান

অনলাইনে বাংলা ভাষাসহ বিভিন্ন ভাষার অভিধান রয়েছে। সবকিছুকে ছাপিয়ে সম্প্রতি অবমুক্ত হলো গুগল অভিধান। বর্তমানে গুগলের এই অভিধান ইংরেজিসহ ২৮টি ভাষাতে ব্যবহার করা যাবে। এই সব ভাষা থেকে ইংরেজি এবং ইংরেজি ভাষা থেকে অন্যান্য ভাষাতে শব্দের অনুবাদ জানা যাবে। সার্চের সাথে সাথে (Search Dictionary বাটনে ক্লিক করলে) শব্দের অর্থতো আসবেই সাথে অডিও (উচ্চারণ), সমজাতীয় শব্দসমষ্টি (Related phrases)) এর অর্থ এবং লিংক, অন্য কোন ভাষাতে শব্দের আছে কি না (যদি থাকে), প্রতিশব্দ, পদ (Part of Speech), ছবি (যদি থাকে) এবং ওয়েব সংজ্ঞা (Web definitions) ইত্যাদি দেখা যাবে। আর গুগল একাউন্টে লগইন অবস্থায় অভিধানে সার্চ করলে হিস্ট্রিতে সার্চ করা শব্দগুলো সংরক্ষিত থাকবে এবং পছন্দের শব্দগুলোকে তারকা চিহ্নিত করে রাখা যাবে। আশার কথা হচ্ছে গুগল অনুবাদে (Google Translator) বাংলা ভাষা না থাকলেও গুগল অভিধানে বাংলা ভাষা যুক্ত হয়েছে। ফলে বাংলা ভাষাভাষিদের জন্য বেশ কাজে দেবে। আর এসব ফলাফল দেখাবে ইউনিকোডে। সাইটির ঠিকানা http://www.google.com/dictionary যাদের কম্পিউটারে ইউনিকোড বাংলা ভাষা কনফিগার করা নেই তারা বাংলা ফলাফল দেখতে পারবেন না। তারা দয়া করে অভ্র সফটওয়্যারটি ইনস্টল করুন অথবা বিজয় বায়ান্ন ব্যবহার করুন।

একই মেসেঞ্জারে একাধিক চ্যাট সুবিধা

ইন্টারনেটে বিভিন্ন মেইলের পাশাপাশি রয়েছে চ্যাট সুবিধা। তবে প্রায় প্রতিটি ফ্রি ই-মেইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের রয়েছে আলাদা আলাদা চ্যাট সুবিধা। চ্যাট করার ক্ষেত্রে ইয়াহুর জন্য ইয়াহু মেসেঞ্জার, হটমেইলে জন্য উইন্ডোজ মেসেঞ্জার ইত্যাদি ব্যবহার করতে হয়। তবে ইচ্ছে করলে একসাথেই সবগুলো ই-মেইল ঠিকানা ব্যবহার করে একটি মেসেঞ্জারেই চ্যাট করা সম্ভব। এমনই একটি মেসেঞ্জার হচ্ছে pidgin।ইমেইলের পাশাপাশি জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ সাইট ফেসবুক চ্যাটও করা যায় এ মেসেঞ্জারের মাধ্যমে। মুক্ত অপারেটিং সিস্টেম লিনাক্সের বিভিনড়ব ডিস্ট্রোতে pidgin মেসেঞ্জারটি দেয়া থাকে। ইচ্ছে করলে উইন্ডোজ ব্যবহারকারীরা pidgin ব্যবহার করতে পারেন। এ জন্য http://www.pidgin.im/download/windows লিংক থেকে ১২.৪ মেগাবাইটের pidgin মেসেঞ্জারটি ডাউনলোড করে নিন। এবার আপনার ব্যবহৃত সবগুলো ই-মেইল ঠিকানা যোগ করে নিন এবং উপভোগ করুন একই মেসেঞ্জারে একাধিক আইডি চ্যাট সুবিধা।

ইউপিএস থেকে বাড়তি সুবিধা

আপনি চাইলে ইউপিএসের কাছ থেকে সুবিধা নিতে পারেন। সাধারণত বিদ্যুৎ চলে গেলে একটি ইউপিএস ১৫-২০ মিনিট বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে পারে। কিন্তু কোনো কাজ যদি এ সময়ের মধ্যে শেষ বা সেভ করতে না পারেন, তবে এ ক্ষেত্রে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের হাইবারনেট সুবিধা আপনাকে বাঁচাবে। কম্পিউটারকে ঘুম পাড়াবে। হাইবারনেট করতে প্রথমে ডেস্কটপে মাউসের ডান ক্লিক করে Properties-এ যেতে হবে। সেখান থেকে Screen saver select করে Power-এ ক্লিক করুন। তারপর Hibernate select করে Enable Hibernatc-এ টিক চিহ্ন দিয়ে OK করুন। আবার Power বাটনে ক্লিক করে Advanced Select করতে হবে। এখন When ও press the sleep button-এ Hibernate select করে OK করুন। যাদের কিবোর্ডে স্লিপ বোতাম নেই, তারা When ও press the power button-এ Hibernabe select করতে হবে। এখন যদি বিদ্যুৎ চলে যায়, তবে Sleep চাপতে হবে (কারও কিবোর্ডে এ বোতামটি না থাকলে কম্পিউটারের Power বোতামটি চাপুন। একটু লক্ষ্য করলে দেখতে পারবেন, কম্পিউটার হাইবারনেটে চলে গেছে। এমন অবস্থায় কম বিদ্যুৎ খরচে কম্পিউটার চালু থাকে। হাইবারনেটের বেশি সময় কম্পিউটার সচল রাখতে চাইলে মনিটর বন্ধ করে রাখতে হবে এবং বিদ্যুৎ চলে এলে কম্পিউটার চালু করুন।

প্রধানমন্ত্রীর অফিসের ওয়েবসাইট: (http://pmo.gov.bd)

নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইট: (http://www.ecs.gov.bd/)

বাংলাদেশ পুলিশ এর ওয়েব সাইট: (http://www.police.gov.bd/)

র্যা ব এর ওয়েবসাইট : (http://www.rab.gov.bd/)

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

এই সম্পর্কীত আরো সংবাদ পড়ুন

পাতালরেলের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

পাতালরেলের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ

বিস্তারিত »