Fri, February 3, 2023
রেজি নং- আবেদিত

প্রাণী খেঁকো বিষধর শামুক

 জলজ শিকারী প্রাণীদের ক্ষেত্রে তাদের খাবার খুঁজে নেয়া খুবই সহজ কাজ। কিন্তু বিষয়টি যদি হয় ধীরগামী শামুকের ক্ষেত্রে হয়! এমনই এক প্রাণীর হলো কেওন। শামুক, যা কিনা প্রাণী খায়! বিষয়টি শুনতে অদ্ভুত লাগলেও সত্য।

আর সম্প্রতি একটি জার্নালে প্রকাশিত প্রতিবেদনে গবেষকরা বলছেন বিষধর শামুকের মধ্যে কেওনই সবচেয়ে বেশি বিষধর। এটি মাছের শরীরে এক ধরনের বিষাক্ত তরল পদার্থ ঢুকিয়ে দেয় যা মাছের শরীরে ইনসুলিনের মাত্রা বাড়িয়ে অসাড় করে ফেলে। কখনও কখনও একাধিক শামুকের সংস্পর্শে এসে মানুষের মৃত্যুর ঘটনাও ঘটেছে।

ন্যাশনাল মিউজিয়াম অব ন্যাচরাল হিস্টোরির কেওন শামুক বিশেষজ্ঞ ক্রিস্টোফার মেয়ার বলেন, একবার মাছের শরীরে সুগার বেড়ে গেলে এটি কোমায় চলে যায়। তখন কেওন শামুকটি একটি কৃত্রিম মুখ দিয়ে অনেকটা জাল বিছানো মতো প্রাণিটিকে আটকে ফেলে এবং পুরোপুরি অসাড় হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত হলে আরেকটি বিষক্রিয়া ঘটায়।

সল্ট লেক সিটিতে ইউনিভার্সিটি অব উথাহ ইন-এ টক্সিন বিষয়ক গবেষণা করছেন হেলেন সাফাভি-হেমামী। তিনি বলেন, একাধিক টক্সিন মূলত শিকারের শরীরে ইনসুলিনের কাজ করে। মানুষ ছাড়া অন্য কোনো প্রাণী ইনসুলিন ব্যবহার করে হত্যার চেষ্টা করে বলে আমাদের জানা নেই। ১৯৮০ সালের কিছু আগে একজন স্ত্রী তার স্বামীকে ইনসুলিন ইনজেকশন দিয়ে হত্যার চেষ্টা করে।

মেয়ার বলেন, আমরা প্রথমে অবাক হয়েছিলাম শামুকটির পাশ দিয়ে যখন মাছ গুলো যায় তখন মাতালের মতো আচরণ করে। এখন বিষয়টি পরিস্কার হয়ে গেছে, কেন এমন হয়।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

এই সম্পর্কীত আরো সংবাদ পড়ুন

পাতালরেলের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

পাতালরেলের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ

বিস্তারিত »