১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

নিউজ ডেস্ক

রহস্যজনক রোগের প্রাদুর্ভাবে উত্তর কোরিয়ার রাজধানীতে লকডাউন

উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে পাঁচ দিনের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ের জনগণকে সেই নির্দেশনা দিয়েছেন। দক্ষিণ কোরিয়ার সিউল ভিত্তিক এনকে নিউজের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানায় মেট্রো নিউজ।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পিয়ংইয়ংয়ের বাসিন্দাদের বুধবার (২৫ জানুয়ারি) থেকে রোববার (২৯ জানুয়ারি) পর্যন্ত তাদের বাড়িতে থাকতে বলা হয়েছে। তবে অফিসিয়াল বিজ্ঞপ্তিতে কোভিড-১৯ উল্লেখ করা হয়নি।

এছাড়া প্রতিদিন তাদের শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষার ফলাফল জমা দিতে হবে বলেও জানানো হয়েছে। গত বছরের এপ্রিলে উত্তর কোরিয়া প্রথম করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার কথা জানায়। আর মাত্র তিন মাস পর দেশটিতে করোনার নিয়ন্ত্রণও ঘোষণা করে।

উত্তর কোরিয়াও মহামারী নিয়ন্ত্রণকে একটি ‘অলৌকিক ঘটনা’ বলে বর্ণনা করেছে। এদিকে পিয়ংইয়ংয়ের বিভিন্ন সূত্রের উদ্ধৃতির বরাত দিয়ে এনকে নিউজ জানিয়েছে, লকডাউনের আভাস পেয়ে রাজধানীর বাসিন্দারা কেনাকাটা করতে শুরু করেছেন।

তবে রাজধানী ছাড়া দেশের অন্য কোথাও লকডাউন জারি করা হয়েছে কিনা তা জানা যায়নি। সরকার নিয়ন্ত্রিত গণমাধ্যম এ নিয়ে কোনো সংবাদ প্রকাশ করেনি।

উল্লেখ্য, দেশটিতে বর্তমানে সাইবেরিয়ান অঞ্চলের মতো শীত পড়ছে। তাপমাত্রা মাইনাস ২২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ঘোরাফেরা করছে।

Please follow and like us:
Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on print

মন্তব্য করুন

অবশ্যই চরিত্রটি চ্যালেঞ্জিং ছিল: চঞ্চল চৌধুরী

অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। একের পর এক সিনেমা-ওয়েব সিরিজ দিয়ে মুগ্ধ করছেন দুই বাংলার ভক্তদের। সফল কাজের তালিকায় যুক্ত করেছেন ‘কারাগার’, ‘হাওয়া’সহ বেশ কয়েকটি সিনেমা-ওয়েব সিরিজ। অর্জনের ঝুলিতে জমা করছেন দেশ-বিদেশের পুরস্কার ও সম্মাননা।

সম্প্রতি আমেরিকা থেকেও দুটি পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। শুধু তাই নয়, আগামী ১৫ আগস্ট পশ্চিমবঙ্গের পর্দায় আসছে চঞ্চলের বহুল আলোচিত সিনেমা ‘পদাতিক’। সৃজিত মুখার্জির এই সিনেমাটিতে তিনি প্রখ্যাত নির্মাতা মৃণাল সেনের ভূমিকায় হাজির হচ্ছেন। সিনেমাটিতে চঞ্চলের লুক, টিজার এরইমধ্যে মন জয় করেছে দুই বাংলার সিনেপ্রেমীদের।

বিষয়টি নিয়ে চঞ্চল চৌধুরী বলেন, ‘মৃণাল সেনের মতো বিখ্যাত মানুষের চরিত্রে অভিনয় করা আমার জন্য বড় বিষয়। অবশ্যই চরিত্রটি চ্যালেঞ্জিং ছিল। পদাতিক সিনেমায় অভিনয় করার পুরো কৃতিত্ব পরিচালকের। তিনি যেভাবে চেয়েছেন, সেভাবেই অভিনয় করেছি। অনেক অপেক্ষার পর পদাতিক আসছে। দর্শকদের মতো আমিও অপেক্ষায় ছিলাম।’

জানা গেছে, সিনেমাটিতে মৃণাল সেনের শৈশব থেকে সিনেমায় আসার গল্প, নির্মাণ ও তার ব্যক্তিজীবনের গল্প তুলে ধরা হয়েছে। এদিকে নতুন এই সিনেমাটির আলোচনা ছাপিয়ে আরেক কাজ দিয়ে শিরোনামে এলেন চঞ্চল। গত ঈদে মুক্তি পেয়েছে নির্মাতা রায়হান রাফীর ‘তুফান’। এই সিনেমাটির মাধ্যমে প্রথমবার শাকিব খান ও চঞ্চল চৌধুরী স্ক্রিন শেয়ার করেছেন।

শুধু তাই নয়, ঈদে মুক্তি পাওয়া অন্য ৪টি সিনেমাকে উড়িয়ে দিয়ে ব্যবসাসফল সিনেমার তকমা নিজের করে নিয়েছে তুফান। এমনকি দেশের গণ্ডি পেরিয়ে কলকাতার পাশাপাশি বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে মুক্তি পেয়েছে এই সিনেমা। সেখানেও দারুণ ব্যবসা ও প্রশংসা পাচ্ছে তুফান। এমন সাফল্যের রেশ ধরে নির্মাতা রায়হান রাফী সিনেমাটির সিক্যুয়েল নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছেন। এবার তিনি জানালেন সিক্যুয়েলে কারা অভিনয় করবেন।

নির্মাতা জানান, এখনো আসন্ন চিত্রনাট্য নিয়ে কিছুটা ঘষামাজা চলছে। মাস দুয়েকের মধ্যে ‘তুফান টু’র শুটিং শুরু হতে পারে। রাফীর কথায়, ‘এবার আরো বড় পরিসরে আসবে তুফান। আগের সিনেমার প্রায় প্রত্যেক অভিনেতাই থাকবেন। টালিউডের প্রথম সারির আরো তারকা থাকতে পারেন। থাকবেন চঞ্চল চৌধুরীও।’ তবে নতুন পর্বে চঞ্চলের ভূমিকা কী থাকবে তা এখনই খোলাসা করতে চাননি তিনি।

Please follow and like us:

একদিনের ব্যবধানে কাঁচা মরিচের দাম অর্ধেকে

শনিবার ৩৫০-৪০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া কাঁচা মরিচের দাম রোববার (১৪ জুলাই) নেমেছে প্রায় অর্ধেকে। বিক্রেতারা বলছেন, সরবরাহ বেড়ে যাওয়ায় কাঁচা মরিচের দাম কমেছে।

এদিন রাজধানীর কারওয়ান বাজারে কাঁচা মরিচ ২০০ টাকা বিক্রি করতে দেখা গেছে। যা একদিন আগেও কেজিপ্রতি ৩৫০-৪০০ বিক্রি হয়েছিল।

বিক্রেতারা জানান, শনিবারও ৩৫০-৪০০ টাকা দরে মরিচ বিক্রি করেছেন। মরিচের সরবরাহ কম থাকায় দাম বেশি ছিল এবং এখন সরবরাহ বাড়ায় দাম কমেছে।

বাজারে দেখা গেছে, মরিচের আকার ও মান ভেদে ২০০-২৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে খুচরা দোকানগুলোতে।

সবজির দোকানগুলো ঘুরে দেখা যায়, ৬০ থেকে ১০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে বিভিন্ন সবজি। সবচেয়ে কম দাম পেঁপের।

কারওয়ান বাজারে পেঁপে বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা কেজিতে। পটল ৬০ টাকা; চিচিঙ্গা ৭০ টাকা; ঢেঁড়স, ধুন্দল, কচুর মুখি ও বরবটি ৮০ টাকা; বেগুন ও করল্লা ১০০ কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এ ছাড়া শসার কেজি ৬০ টাকা এবং টমেটোর ১৮০ টাকা।

শনিবারের চেয়ে কেজিতে প্রায় ২০ টাকা বেড়েছে ব্রয়লার মুরগির দাম। প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৯০ টাকায়। এ ছাড়া সোনালি মুরগির কেজি ২৮০-৩০০ টাকা।

Please follow and like us:

ভিকারুননিসার ১৬৯ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিলের আদেশ বহাল

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের স্কুল শাখায় বয়সের নিয়ম না মানার অভিযোগে ভর্তিকৃত প্রথম শ্রেণির ১৬৯ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিলের রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল খারিজ করে দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

রোববার প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে তিন বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

জানা গেছে, ভিকারুননিসায় ২০২৪ শিক্ষাবর্ষে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তির ক্ষেত্রে বয়সের ঊর্ধ্বসীমা (নিজেদের নির্ধারিত) অনুসরণ না করে ২০২৪ শিক্ষাবর্ষে প্রথম শ্রেণিতে বিধিবহির্ভূতভাবে ভর্তি হওয়া ২০১৫ সালে জন্মগ্রহণকারী ১০ জন এবং ২০১৬ সালে জন্মগ্রহণকারী ১৫৯ জনসহ মোট ১৬৯ জন শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল চেয়ে আবেদন করেন একজন অভিভাবক। স্কুল কর্তৃপক্ষ সাড়া না দেওয়ায় তিনি হাইকোর্টে রিট করেন। গত ২৩ জানুয়ারি হাইকোর্ট ১০ দিনের মধ্যে বিষয়টি নিষ্পত্তির নির্দেশ দেন।

এরপর গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ভিকারুননিসা স্কুল কর্তৃপক্ষকে এই ১৬৯ জনের ভর্তি বাতিল করতে স্কুল কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেয় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ওই ছাত্রীদের ভর্তি বাতিল করে কর্তৃপক্ষ।

Please follow and like us:

মুখোমুখি দুই অভিজ্ঞ সেনানী

সেই ১৯১৬; ফুটবলের সাদা-কালো যুগের শুরুতে সবচেয়ে আলো ছড়ানো এক প্রতিযোগিতা ছিল এই কোপা আমেরিকা। তখন অবশ্য লোকে চিনতেন সাউথ আমেরিকান চ্যাম্পিয়নশিপ নামে। প্রথম আসরটা হয় আর্জেন্টিনার বুয়েন্স আইয়ার্সে। সেবার চার দলের টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয় উরুগুয়ে। মজার ব্যাপার হলো, ১৯৩০ সালে যাত্রা করা বিশ্বকাপেরও প্রথম ট্রফি এই উরুগুয়ের হাতে ওঠে। 

ফুটবলের সবচেয়ে মর্যাদার প্রতিযোগিতা ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থও’ কিছু রং নেয় কোপা থেকে। এর পর তো ইউরোর পথচলা। সময়ের ব্যবধানে চলতে থাকা ফুটবল দ্বৈরথগুলোর মধ্যে তবু কোপার গুরুত্ব বা ঐতিহ্য বাকি দুই টুর্নামেন্টের চেয়ে একটুও কমেনি। বরং সবচেয়ে বুড়ো হওয়ার পরও দিনকে দিন এই প্রতিযোগিতায় যোগ হচ্ছে বাড়তি সব উন্মাদনা।

শত বছর ধরে চলতে থাকা যে যুদ্ধে সবাই বিজয় ছিনিয়ে আনতে চায়। এবার দুই দর্শকনন্দিত দল ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার বাইরেও চমক দেখিয়েছে আরও কয়েকটি দল। প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হওয়া উরুগুয়েও স্বপ্ন দেখেছিল। শেষ পর্যন্ত যদিও তারা সেমি থেকে বিদায় নেয়। ইতিহাস আর সুন্দরের পসরা সাজানো এই কোপা আমেরিকার ফুটবল হয়তো বদলেছে তার রূপ। পেলে, রোনালদো, কাফু, ম্যারাডোনা, বাতিস্তুতাদের সময় পেরিয়ে আসা কোপায় লেগেছে নতুন এক প্রজন্মের ছোঁয়া। তবু পুরোনোকে ভোলা মুশকিল।

সোমবার সকালের ফাইনালে আর্জেন্টিনা নামবে কলম্বিয়ার বিপক্ষে। সেখানেও নতুনের সঙ্গে পুরোনো ছায়া হয়ে আছে। সেটা ইতিহাস বলি কিংবা পরিসংখ্যান বা দলের ভেতরের টক্কর। দু’দলে এবার দারুণ সব তারকা। যেখানে আবার সবচেয়ে অভিজ্ঞ হামেস রদ্রিগেজ ও লিওনেল মেসি। তাদের দু’জনের গল্পটা দুই রকম হলেও এবারের ফাইনালে তাদের স্বপ্নটা এক। দু’জনই চান ট্রফিটা জিততে।

এটা ঠিক, মেসির সঙ্গে হামেসের তুলনা চলে না। কারণ মেসি যতটা না ফুটবলে সফল, হামেস সেই তুলনায় অনেকটাই ব্যর্থ। বলা যায়, নিজেকে হারিয়ে আবার নতুন করে আবিষ্কার করার চেষ্টা করছেন তিনি। কেউ হয়তো ভাবেনওনি হামেস আবার ফিরবেন। তাও এমন দাপুটে পারফর্ম দিয়ে। কোপায় কলম্বিয়ার এতদূর আসার পেছনে হামেসের অবদান অনেকখানি। তাঁর নেতৃত্বে কলম্বিয়া তো শেষ ২৮ ম্যাচের একটিও হারেনি। আবার ব্যক্তিগতভাবে তিনিও দারুণ উজ্জ্বল। চলমান কোপায় এক গোলের সঙ্গে ছয় গোলে অ্যাসিস্ট করেছেন হামেস।

মনে হচ্ছে, ২০১৪ সালের হামেসকে ফিরে পেল কলম্বিয়া। সেবার ব্রাজিলের মাটিতে একাই গোলমুখ কাঁপিয়েছিলেন। সবচেয়ে বেশি গোল করে গোল্ডেন বুটও জেতেন। এর পরই রিয়াল রেকর্ড ফি দিয়ে তাঁকে দলে ভেড়ায়। সেখানে আশানুরূপ পারফর্ম করতে না পারায় ছাড়তে হয় মাদ্রিদ। সেখান থেকে বায়ার্ন মিউনিখ, এভারটন হয়ে আবার হারিয়ে যাওয়া। কিন্তু কোপার মতো মঞ্চে যে কলম্বিয়ার আশার প্রদীপ হয়ে দেখা দেবেন, কে জানত? এবার ফাইনালে তাঁর আসল রূপটা দেখার অপেক্ষা। সেট পিস থেকে বল বানিয়ে দেওয়ার নিখুঁত এক কারিগর তিনি। তাঁর পার্সিং জাদুও মুগ্ধতা ছড়িয়েছে এরই মধ্যে। তবে হামেসের সঙ্গে আসল লড়াইটা হবে মেসির। আগের ছন্দে না থাকলেও সেমিতে গোল করে আবার নিজেকে ফিরে পাওয়ার আনন্দ পাচ্ছেন লিও।

Please follow and like us:

ট্রাম্পের ওপর হামলা

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ওপর হামলা হয়েছে। স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যা ৬টা ১৫ মিনিটের দিকে পেনসিলভানিয়ায় এক নির্বাচনী প্রচারে এ ঘটনা ঘটে। হামলাকারীর গুলিতে আহত হয়েছেন ট্রাম্প। তবে তা গুরুতর নয়।

সন্দেহভাজন হামলাকারী পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন। একজন সমর্থকও নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন জেলা অ্যাটর্নি রিচার্ড গোলডিঞ্জার।

হামলার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। তাতে দেখা গেছে, ট্রাম্প মঞ্চে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দিচ্ছেন। এ সময় হঠাৎ গুলি শব্দ হয়। সঙ্গে সঙ্গে মঞ্চে বসে পড়েন ট্রাম্প। এ সময় তাঁর সমর্থকদের চিৎকার করতে শোনা যায়।

এরপর সিক্রেট সার্ভিসের সদস্যরা ট্রাম্পকে দ্রুত একটি গাড়িতে তোলেন। এ সময় ট্রাম্পের কান ও গাল বেয়ে রক্ত পড়তে দেখা যায়। ওই গাড়িতে তাঁকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

ট্রাম্পের প্রচার শিবির বলেছে, সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তবে তাঁর আঘাত গুরুতর নয়।

একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, ট্রাম্প মঞ্চে ওঠার কিছুক্ষণ পরেই পাশের একটি ভবনের ছাদে ওঠেন সন্দেহভাজন হামলাকারী। তাঁর হাতে একটি রাইফেল ছিল।

এদিকে ট্রাম্পের ওপর হামলার ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, পেনসিলভানিয়ায় সহিংসতার ঘটনায় সবার নিন্দা জানানো উচিত।

বাইডেন আরও বলেছেন, হামলা সম্পর্কে তাঁকে বিস্তারিত জানানো হয়েছে। শিগগিরই ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলে তাঁর খোঁজখবর নিতে পারবেন বলে আশা করছেন। তিনি বলেন, ‘আমরা এ ধরনের ঘটনা মেনে নিতে পারি না।’

Please follow and like us:

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠকে ওবায়দুল কাদের

সর্বজনীন পেনশনের ‘প্রত্যয়’ স্কিম বাতিলের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ বৈঠক শুরু হয়।

বৈঠকে উপস্থিত আছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক ও শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী শামসুন্নাহার চাঁপা। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক উপদেষ্টা ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরীও বৈঠকে উপস্থিত আছেন।
এর আগে, গত ৪ জুলাই এ বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও পরে তা স্থগিত করা হয়। এর কারণ হিসেবে তখন ওবায়দুল কাদেরের রাষ্ট্রীয় কাজে ব্যস্ত থাকার কথা জানা যায়।

উল্লেখ্য, প্রত্যয় স্কিমের প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহারের দাবিতে সর্বাত্মক কর্মবিরতি পালন করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। শিক্ষকেরা মূলত ‘প্রত্যয়’ স্কিমের প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহার, সুপার গ্রেডে (জ্যেষ্ঠ সচিবরা যে ধাপে বেতন পান) বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অন্তর্ভুক্তি এবং শিক্ষকদের জন্য স্বতন্ত্র বেতনকাঠামো প্রবর্তন- এই তিন দাবিতে আন্দোলন করছেন।

Please follow and like us:

নাইজেরিয়ায় ধসে পড়ল স্কুলভবন, ২২ শিক্ষার্থীর মৃত্যু

নাইজেরিয়ার মধ্য প্লাটিউ রাজ্যের একটি স্কুল ভবন ধসে ২২ জন শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে ১৩০ জনের বেশি শিক্ষার্থী। স্থানীয় সময় শুক্রবার এ দুর্ঘটনা ঘটে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, শুক্রবার সকালে পাঠদান চলার সময় রাজ্যটির রাজধানী জসে সেইন্ট অ্যাকাডেমি নামের ওই স্কুলের ভবন ধসে পড়লে চাপা পড়ে শিক্ষার্থীরা। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান উদ্ধারকর্মীরা। এক্সক্যাভেটর ও হাতুড়ি দিয়ে ধসে পড়া বড় বড় কংক্রিটের স্তুপ গুঁড়িয়ে দিয়ে চাপাপড়াদের উদ্ধারে হাত লাগান তাঁরা।

স্থানীয় পুলিশ বলছে, দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত অনেককে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ধারণা করা হচ্ছে, স্কুলটিতে শিক্ষার্থীর সংখ্যা এক হাজারের বেশি।

দুর্ঘটনাটিকে ‘ভয়াবহ’ আখ্যা দিয়ে অ্যাবেল ফুয়ানদাই নামের একজন স্থানীয় বাসিন্দা জানান, স্কুলভবন ধসে তার বন্ধুর ছেলেও মারা গেছে।

স্কুলভবনটি ধসে পড়ার কারণ জানা না গেলেও স্থানীয়রা বলছেন, প্লাটিউ রাজ্যে টানা তিন দিন ধরে ভারি বৃষ্টির পরই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

উইলিয়া ইব্রাহ্রিম নামের আহত এক শিক্ষার্থী বলে, ‘ ক্লাসে আমরা অনেকেই ছিলাম, আমরা পরীক্ষা দিচ্ছিলাম।’

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে নাইজেরিয়ায় ভবন ধসের কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। বিশেষজ্ঞরা এজন্য নির্মাণকাজ ও নির্মাণসামগ্রীর নিম্নমান এবং দুর্নীতিকে দায়ী করেন। ২০২১ সালে লাগোসের অভিজাত এলাকার একটি নির্মাণাধীন বহুতল ভবন ধসে ৪৫ জনের মৃত্যু হয়।

Please follow and like us:

কলকাতায় গুটিয়ে গেল ‘তুফান’

বিশ্বজুড়ে চলছে ‘তুফান’র নানা তাণ্ডব। তবে ভারতে সুবিধা করতে পারল না শাকিব খান অভিনীত চলচ্চিত্রটি। মুক্তির এক সপ্তাহের মধ্যে কলকাতার সব হল থেকে নেমে গেছে সিনেমাটি।
শহর কলকাতার কাছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার একটি হলে কেবল চলছে সিনেমাটি।

জানা যায়, প্রযোজনা সংস্থা এসভিএফ ভারতের ৪৫টিরও বেশি সিনেমা হলে মুক্তি দেয় চলচ্চিত্রটি। এর প্রায়ই সবই ছিল কলকাতার হল। এখন দক্ষিণ ২৪ পরগনার চম্পাহাটি সিনেমা হলে চলতি সপ্তাহে দেখা যাবে ছবিটি।

পশ্চিমবঙ্গের বিশ্লেষকদের মতে, উৎসব ছাড়া সেখানকার সুপারস্টারই বেশ ধাক্কা খান কলকাতায়। কারণ সেখানে দক্ষিণী ও হিন্দি ছবির দাপট। তাই বাংলাদেশে শাকিব খানের জনপ্রিয়তা আকাশছোঁয়া হলেও কলকাতায় এটি খুব একটা প্রভাব ফেলতে পারেনি।

ছবিটি সব মিলিয়ে আয় ১০ লাখের গন্ডিও পেরোতে পারেনি। এদিকে শুরু থেকেই তুফান নিয়ে আশার পারদ ক্রমশ বাড়িয়েছিলেন ছবির পরিচালক ও প্রযোজকরা। বাংলাদেশে এখন বেশ দাপিয়ে বেড়াচ্ছে সিনেমা।

প্রসঙ্গত, একজন গ্যাংস্টারের গল্পে নির্মিত হয়েছে তুফান। ফিকশনধর্মী এ সিনেমার পটভূমি নব্বই দশকের। দ্বৈত চরিত্রে রয়েছেন শাকিব খান। তাঁর বিপরীতে জুটি বেঁধেছেন টলিউডের মিমি চক্রবর্তী ও ঢালিউডের মাসুমা রহমান নাবিলা। আরও রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের রজত গাঙ্গুলিসহ গাজী রাকায়েত, ফজলুর রহমান বাবু, মিশা সওদাগর প্রমুখ। সিনেমাটি প্রযোজনা করেছে আলফা-আই স্টুডিওস লিমিটেড, চরকি ও ভারতের এসভিএফ।

Please follow and like us:

১৬ প্রজাতির পোকামাকড় খাওয়ার অনুমোদন দিল সিঙ্গাপুর

অনুমোদন পাওয়া পোকামাকড়ের মধ্যে রয়েছে ঝিঁঝিপোকা, ঘাসফড়িং, পঙ্গপাল, রেশম পোকা, গ্রাউন্ড মেলওয়ার্ম, নানা ধরনের মথ ও লার্ভা, এক প্রজাতির মৌমাছিসহ ১৬ প্রজাতির পোকামাকড়।

থাইল্যান্ডে বিক্রি হওয়া রেশম পোকার পিউপা দেখা যাচ্ছে যেটি সিংগাপুরেও খাওয়া ও বিক্রির অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

সিঙ্গাপুরে ১৬ প্রজাতির পোকামাকড় মানুষের খাওয়ার জন্য নিরাপদ বলে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সিঙ্গাপুর ফুড এজেন্সি (এসএফএ) খাওয়ার জন্য ঝিঁঝিঁ পোকা, মথ লার্ভা এবং এক প্রজাতির মৌমাছির মতো পোকামাকড় খাওয়ার অনুমোদন দিয়েছে।

এসএফএ থেকে জানানো হয়েছে, ইনসেক্ট ইন্ডাস্ট্রি (পোকামাকড় শিল্প) ‘ধীরে ধীরে বাড়ছে এবং পোকামাকড় নতুন খাদ্য আইটেম হিসেবে’ বিবেচিত হচ্ছে। এ ব্যাপারে একটি নিয়ন্ত্রক সংস্থা গঠন করা হয়েছে যেটি কোন কোন পোকামাকড়কে খাদ্য হিসেবে অনুমোদন দেওয়া হবে তা নির্ধারণ করবে।

এসএফএর অনুমোদন পাওয়া পোকামাকড়ের মধ্যে রয়েছে ঝিঁঝিপোকা, ঘাসফড়িং, পঙ্গপাল, রেশম পোকা, গ্রাউন্ড মেলওয়ার্ম, নানা ধরনের মথ ও লার্ভা, এক প্রজাতির মৌমাছিসহ ১৬ প্রজাতির পোকামাকড়।

দীর্ঘ গবেষণার পর এসব পোকামাকড় মানুষের খাদ্য হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে এসএফএ। এসব পোকামাকড় মানবদেহের জন্য নিরাপদ হওয়ায়, প্রোটিনের চাহিদা পূরণে এ সিদ্ধান্ত বেশ কাজ আসতে পারে বলে মনে করছে সংস্থাটি।

সংস্থাটি থেকে জানানো হয়েছে, অনুমোদন পাওয়া পোকামাকড় খাওয়ার জন্য উৎপাদন এবং অন্যান্য দেশ থেকে আমদানি করা যাবে। তবে বন-জঙ্গল থেকে কোনোভাবেই ধরে আনা যাবে না।

উৎপাদন করা পোকামাকড়ের ক্ষেত্রে কঠোর মান নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। পোকা আমদানির ক্ষেত্রে উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানকে অবশ্যই সিঙ্গাপুরের মানদণ্ড মানতে হবে।

অস্ট্রেলিয়ার কীট ও খাদ্য বিজ্ঞানী স্কাই ব্ল্যাকবার্ন পোকামাকড়কে খাদ্য হিসেবে ব্যবহার সমর্থন করেন। তিনি সিঙ্গাপুরের মানুষের ব্যবহারের জন্য অনুমোদিত পোকামাকড় প্রজাতির বিস্তৃত তালিকা দেখে অভিভূত হয়ে বলেন, ‘এসব খাবার-যোগ্য পোকামাকড়ের প্রতি সিঙ্গাপুর যে উদারতা প্রদর্শন করেছে তা সাধারণ প্রত্যাশার থেকেও বেশি ছিল।’

এদিকে এ ঘোষণায় সিঙ্গাপুরের রেস্তোরাঁ মালিক এবং খাদ্য আমদানিকারকরা বেশ খুশি হয়েছেন। হাউজ অব সিফুড নামে দেশটির একটি রেস্তোরাঁ চেইন ইতোমধ্যেই পোকামাকড় দিয়ে বানানো ৩০ ধরনের খাবার রেস্তোরাঁয় চালু করার পরিকল্পনা করে ফেলেছে ।

খাবারের তালিকায় রয়েছে: রেশম পোকা এবং ঝিঁঝিঁ পোকা দিয়ে সজ্জিত সুশি, সুপার-ওয়ার্ম ও লবণ-যুক্ত ডিমে দিয়ে প্রস্তুতকৃত কাঁকড়া এবং ওয়ার্ম দিয়ে তৈরি করা “মিন্টি মিটবল মেইহ্যাম”।

সিঙ্গাপুরের কর্তৃপক্ষ পোকামাকড় ব্যবহার করে তৈরি করা পণ্য আমদানির অনুমোদন দিয়েছে। এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে: পোকার তেল, পোকামাকড় দিয়ে রান্না না করা পাস্তা, চকলেট এবং অন্যান্য মিষ্টি যার মধ্যে ২০ শতাংশ পর্যন্ত পোকামাকড় রয়েছে। এছাড়া মৌমাছির লার্ভাসহ বিটল গ্রাব ও সিল্ক-ওয়ার্ম-এর পিউপা আমদানির অনুমতি দেয়া হয়েছে।

যেহেতু জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) মানুষ এবং গবাদি পশুর জন্য প্রোটিন সরবরাহ করতে এবং পরিবেশগত সুবিধার জন্য পোকামাকড় ব্যবহারকে উৎসাহিত করে, সিঙ্গাপুর খাদ্য হিসেবে এসব পোকামাকড় ব্যবহার করার অনুমোদন দিয়েছে।

জাতিসংঘ থেকে উন্নয়নশীল দেশে মানুষ ও পশুর প্রোটিনের চাহিদা মেটাতে নিয়ন্ত্রিত উপায়ে এসব পোকামাকড় উৎপাদন ও সেগুলো খাদ্যসামগ্রীতে ব্যবহার করতে উৎসাহিত করা হচ্ছে।

Please follow and like us:

সন্ধ্যায় নতুন কর্মসূচি দেবেন কোটা আন্দোলনকারীরা

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে এক দফা আন্দোলনে আজ দেশের সব জেলা এবং ক্যাম্পাসের প্রতিনিধিদের সঙ্গে জনসংযোগ করবেন আন্দোলনকারীরা।

শনিবার সন্ধ্যা ৬টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে প্রেস ব্রিফিংয়ে তারা পরবর্তী কর্মসূচির ঘোষণা দেবেন।

ছাত্র আন্দোলনের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তারা আবারও রাজপথের আন্দোলন কর্মসূচি দেবেন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা পড়ার টেবিলে ফিরবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

শুক্রবার (১২ জুলাই) বিকাল ৫টার দিকে শাহবাগে এসে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা। প্রায় এক ঘণ্টা তারা রাজধানীর এই গুরুত্বপূর্ণ মোড়টি অবরোধ করে রাখেন। এতে ওই এলাকায় যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

পরে শিক্ষার্থীরা পরবর্তী কর্মসূচির ঘোষণা দেন। তারা জানান, শনিবার (১৩ জুলাই) দেশের সব জেলা এবং ক্যাম্পাসের প্রতিনিধিদের সঙ্গে জনসংযোগ করা হবে। একই সঙ্গে পূর্বে ঘোষিত ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচিও চলমান থাকবে।

আন্দোলনের অন্যতম সমন্বয়ক ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী হাসনাত আব্দুল্লাহ বলেন, ‘যারা কখনোই চাকরি করবে না, তারা প্রশ্ন তুলছে আমাদের আন্দোলন নিয়ে। যতগুলো প্রতিষ্ঠানে রক্ত ঝরছে তার তীব্র নিন্দা আমরা জানাই। যেখানেই হামলা হবে আমরা দাঁতভাঙা জবাব দেব। আমাদের হারানোর কিছু নেই। আমাদের একমাত্র চাওয়া একটি মেধা।

আন্দোলনের আরেক সমন্বয়ক আব্দুল কাদের বলেন, ‘আমরা এসেছিলাম দেশের হাল ধরতে। আমাদের এক দফা মেনে নিন। আমাদের পড়ার টেবিলে ফেরত যেতে দিন৷’

আরেক সমন্বয়ক আবু বকর মজুমদার বলেন, ‘বৃহস্পতিবার বিভিন্ন ক্যাম্পাস এবং জেলায় যাদের পুলিশ নির্যাতন করেছে তার তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানাচ্ছি আজকের শাহবাগ অবরোধ থেকে। আমাদের পরবর্তী কর্মসূচি হলো আগামীকাল দেশের সব জেলা এবং ক্যাম্পাসের প্রতিনিধিদের সঙ্গে জনসংযোগ ও ৬টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে প্রেস ব্রিফিং হবে।’

২০১৮ সালের অক্টোবরে কোটাবিরোধী আন্দোলন চরম আকার ধারণ করলে সরকার পরিপত্র জারি করে সরকারি চাকরিতে কোটাব্যবস্থা পুরোপুরি বাতিল করে দেয়। ওই পরিপত্র চ্যালেঞ্জ করে ২০২১ সালে রিট করেন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম কমান্ড কাউন্সিলের সভাপতি অহিদুল ইসলামসহ সাত শিক্ষার্থী। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ৫ জুন পরিপত্রটি বাতিল করে দেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ।

এই রায়ের পর ফুঁসে উঠেন শিক্ষার্থীরা। তারা কোটা বাতিলের দাবিতে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেন। গত ১ জুলাই থেকে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে জোরালো আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা।

Please follow and like us:

পাঠক প্রিয়